রাষ্ট্র নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ

রাষ্ট্র জনগণের নিরাপত্তা
দিতে ব্যর্থ হয়েছে

রাষ্ট্র জনগণের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে

                -বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন

আজ ২৬ জানুয়ারী ২০২৪, শুক্রবার, শাহবাগ, পাবলিক লাইব্রেরীর সামনে ঢাকা মহানগর বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের আয়োজনে সড়কে কাঠামোগত হত্যাকান্ড বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদি সাংস্কৃতিক আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা মহানগর ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি অনুপম রায় রূপকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক হাসান আল মেহেদী ও দপ্তর সম্পাদক নুসরাত হকের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত সৌভিক করিমের মা বন্যা করিম, গণসংহতি আন্দোলনের রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ও গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈকত আরিফ, ছাত্র ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি গোলাম মোস্তফা, নারী সংহতির কেন্দ্রীয় নেতা সুমি রেক্সোনা পারভীন, ঢাকা মহানগর শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম এইচ রিয়াদ, ঢাবি শাখার আহৃবায়ক আরমানুল হক, ঢাকা মহানগর শাখার নেতা তুহিন ফরাজী, জহির রায়হান ও রাকিব হোসেন। সাংস্কৃতিক আয়োজনের শুরুতেই সড়কে কাঠামোগত হত্যাকান্ডের শিকার হওয়া মানুষদের স্মরণ করে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

সমাবেশে সৌভিক করিমের মা বন্যা করিম বলেন, “সড়ক দূর্ঘটনায় ২০২৩ সালে প্রায় ৫ হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন। বর্তমান সরকারের প্রায় ১৫ বছরের শাসনামলে দেশে সড়ক এক মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে। কাঠামোগত উন্নয়নের ঢাকঢোল পিটিয়ে সরকার জনগণের ভোটাধিকারসহ সকল মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। মানুষের জীবন হয়েছে বিপন্ন। মানুষ হারিয়েছে বিচার পাবার অধিকার। আমি আমার সন্তানের হত্যার বিচার চাই না। এই রাষ্ট্র সর্বতভাবে মানুষের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।”

সমাবেশে বক্তারা বলেন, “ঢাকা শহরের রাস্তাসহ সারাদেশের সড়ক মহাসড়কে মানুষের মৃত্যু স্বাভাবিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। দেশে অগণিত মানুষ তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছে সড়কে। এত হত্যা, এত মৃত্যু নিছক দূর্ঘটনা নয়, সড়কের এই দূর্ঘটনা কাঠামোগত হত্যাকান্ড। ২০১৮ সালে এদেশের কিশোররা নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করেছে, সেই সড়ক আন্দোলনের পর সরকার কার্যত কিছু জরিমানা বৃদ্ধি ছাড়া সড়ক নিরাপদ করতে আর কোন উদ্যোগ নেয়নি। সারাদেশে সড়কে অসংখ্য গর্ত, অবব্যবস্থাপনা সড়ককে মৃত্যুপুরিতে পরিণত করেছে। আমরা সড়কে কাঠামোগত হত্যা বন্ধে কার্যকরী উদ্যোগ নেবার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাই।”

সভাপতির বক্তব্যে অনুপম রায় রূপক বলেন, “সারাদেশে সড়কে কাঠামোগত হত্যাকান্ড বন্ধের কার্যকর উদ্যোগ নেবার দাবিতে আমাদের আজকের এই সাংস্কৃতিক আয়োজন। সারাদেশের মানুষকে সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিতে উচ্চকন্ঠ হবার আহ্বান জানাই।”

সমাবেশে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করে গানের দল ডেমোক্রেজি ক্লাউনস, সোহাগ রহমত এ্যান্ড ফ্রেন্ডস, আমাদের পাঠশালার গানের দল। একক পরিবেশনা করেন সীমা আক্তার, জিনাত আরা, কিশোয়ার সাম্য, শাহরিয়ার রায়হান।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

তারিখ: ২৬ জানুয়ারি ২০২৪

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *